সর্বশেষখেলা

ইংল্যান্ডকে হারিয়েও বাংলাদেশকে ভয় পায় দক্ষিণ আফ্রিকা

বাংলাদেশকে ভয় পায় দক্ষিণ আফ্রিকা

ওয়ানডেতে বাংলাদেশ ও দক্ষিণ আফ্রিকার ম্যাচটিকে দুই ভাগে ভাগ করতে হবে। প্রথম অধ্যায় 3 অক্টোবর 2002 থেকে 10 জুলাই 2015 পর্যন্ত।ইংল্যান্ডকে হারিয়েও বাংলাদেশকে ভয় পায় দক্ষিণ আফ্রিকা

ইংল্যান্ডকে

পরবর্তী অধ্যায় 12 জুলাই, 2015 থেকে গত বছরের 23 মার্চ পর্যন্ত। হেড টু হেড ইতিহাস দুই দলের মধ্যে বিভক্ত—হেড টু হেড পরিসংখ্যান।ওডিআইতে, উভয় দল এখন পর্যন্ত 24টি ম্যাচে একে অপরের মুখোমুখি হয়েছে। এর মধ্যে দক্ষিণ আফ্রিকা জিতেছে ১৮টিতে, বাংলাদেশ জিতেছে মাত্র ৬টিতে। কিন্তু দুইয়ের মধ্যে লড়াইকে ভাগ করলে দেখবেন দ্বিতীয়ার্ধে আরেক বাংলাদেশকে হারিয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা।

প্রথমার্ধে খেলা ১৫ ম্যাচের মধ্যে মাত্র ১টিতেই জিতেছে বাংলাদেশ। কিন্তু 12 জুলাই, 2015 থেকে খেলা 9 ম্যাচের মধ্যে 5টিতে বাংলাদেশ জিতেছে, আর দক্ষিণ আফ্রিকা জিতেছে 4টিতে। এই পরিসংখ্যানগুলিকে পিছনে ফেলে, আগামীকাল মুম্বাইয়ে বিশ্বকাপের ম্যাচে মুখোমুখি হচ্ছে দুই দলই। তবে বিশ্বকাপে দুই দলই সমান তালে। দুটি দলই ৪টি করে ম্যাচ জিতেছে।

ইংল্যান্ডকে
আজ মুম্বাইয়ে প্রাক-ম্যাচ সংবাদ সম্মেলনে, ইংল্যান্ডকে দক্ষিণ আফ্রিকান ব্যাটসম্যান এইডেন মার্করামকে পরিসংখ্যানের কথা মনে করিয়ে দেওয়া হয়েছিল এবং জিজ্ঞাসা করা হয়েছিল যে তিনি বাংলাদেশের বিপক্ষে ম্যাচের আগে দলের খেলোয়াড়দের কোন সতর্কতা দিতে চান কিনা ইংল্যান্ডকে। মার্করামের জবাব, ‘বাংলাদেশের বিপক্ষে ম্যাচটা সবসময়ই আমাদের জন্য বড়। কারণ অতীতে আমরা তাদের বিপক্ষে খুব একটা ভালো পারফর্ম করতে পারিনি।

গত বছর দক্ষিণ আফ্রিকায় ওয়ানডে সিরিজ জিতেছিল বাংলাদেশ। কিন্তু বিশ্বকাপে আরেক দক্ষিণ আফ্রিকাকে দেখছে ভারত। শেষ ম্যাচে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ৩৯৯ রান করেছিল দলটি। ইংল্যান্ড 170 রানে আউট হয়ে 229 রানে ম্যাচ জিতে নেয়। যে ছয়টি পাকিস্তানের ১৬ মাসের খরা শেষ করেছিল ১৩৬২ বলে

দক্ষিণ আফ্রিকার খেলোয়াড়রা অনুশীলন করছেন ছবি:

ইংল্যান্ডকে

সেই ম্যাচে অনুপ্রাণিত হয়ে মার্করাম আগামীকাল বাংলাদেশের বিপক্ষে একই খেলা খেলতে চান, “এটা (সাম্প্রতিক সময়ে বাংলাদেশের বিপক্ষে ভালো না খেলে) বাংলাদেশের বিপক্ষে ইংল্যান্ডকে ম্যাচের মতো জ্বলে উঠতে প্রেরণা দেয়।” মার্করাম বলেছেন যে তিনি তার পরিসংখ্যান উন্নত করার চেষ্টা করবেন।

তবে দক্ষিণ আফ্রিকার অধিনায়কেরও মনে আছে বাংলাদেশ একটি উপমহাদেশীয় দল। ভারতের মাটিতে ইংল্যান্ডকেও বাংলাদেশ সমান প্রতিপক্ষ নাও হতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন তিনি, যোগ করেছেন, “আমাদের ভালো ম্যাচ ছিল।” তবে আপনাকে মনে রাখতে হবে যে আগামীকাল একটি নতুন ম্যাচ রয়েছে। সেটাও এমন একজন প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে যে সাদা বলের ক্রিকেটে সত্যিই ভালো। আর খেলাটি যেহেতু উপমহাদেশের তাই তাদের কাজে লাগবে।

আরও পড়ুন

বিশ্বকাপে বাংলাদেশের দুই ম্যাচে মাঠে নামবে ‘কাজল রেখা’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button