জাতীয়সর্বশেষ

টোল দিয়ে বঙ্গবন্ধু টানেল পরিদর্শন করেছেন প্রধানমন্ত্রী

টোল দিয়ে বঙ্গবন্ধু টানেল পরিদর্শন করেছেন প্রধানমন্ত্রী

টোল দিয়ে টানেল উদ্বোধন উপলক্ষে আজ (শনিবার) বাণিজ্যিক নগরী চট্টগ্রামে আয়োজিত এক জনসভায় বাংলাদেশে নিযুক্ত চীনের রাষ্ট্রদূত জো ওয়েন অভিনন্দন বার্তা পাঠ করেন এবং পরে অনুষ্ঠানে উপস্থিত প্রধানমন্ত্রীর কাছে তা হস্তান্তর করেন।

টোল
টোল দিয়ে বঙ্গবন্ধু টানেল পরিদর্শন করেছেন প্রধানমন্ত্রী

.
বার্তা পাঠ করে রাষ্ট্রদূত বলেন, বাংলাদেশে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান টানেলের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করা আমার জন্য অনেক সম্মানের। এই টানেল উদ্বোধন উপলক্ষে চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং তার অভিনন্দন বার্তায় আন্তরিক অভিনন্দন জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, চীনা প্রেসিডেন্ট কৃতজ্ঞতার সাথে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগদানের জন্য শেখ হাসিনার আমন্ত্রণের কথা স্মরণ করেন। কর্ণফুলী নদীর তলদেশে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান টানেল উদ্বোধনের পর নিজ হাতে টোল পরিশোধ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

টোল
প্রধানমন্ত্রীর

শনিবার (২৮ অক্টোবর) এই টানেলের উদ্বোধন করা হয়। এর মধ্য দিয়ে বাংলাদেশ সুড়ঙ্গ যুগে প্রবেশ করেছে। এই সময়, তিনি তার গাড়ির বহর নিয়ে পুরো টানেলটি ঘুরে দেখেন।

ডেপুটি প্রেস সেক্রেটারি হাসান জাহিদ তুষার এ খবর নিশ্চিত করেছেন যে, শনিবার (২৮ অক্টোবর) সকাল ১১টা ১৫ মিনিটে সরকার প্রধান হেলিকপ্টারযোগে পতেঙ্গার নৌ হেলিপ্যাডে পৌঁছান। উদ্বোধনী অনুষ্ঠান হবে টানেলের পতেঙ্গা প্রান্তে।

শনিবার সকালে উদ্বোধন ঘোষণার পর আনোয়ারা প্রান্তে টানেল দিয়ে যাবেন প্রধানমন্ত্রী। পরে কোরিয়ান ইপিজেড মাঠে চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায় যোগ দেবেন সরকারপ্রধান।

টোল
টানেল উদ্বোধন

তার আগমন উপলক্ষে সকাল ৯টা থেকে ইপিজেড মাঠে বিপুল সংখ্যক মানুষ আসতে শুরু করেন, উপজেলা পর্যায়ের নেতারা বক্তব্য দেন। র‌্যালিতে মহানগরসহ চট্টগ্রামের বিভিন্ন উপজেলা থেকে দলীয় নেতাকর্মীরা বর্ণিল ব্যানার ও ঝালর নিয়ে অংশ নেন। তাদের হাতে রঙিন টি-শার্ট।

চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোতাহেরুল ইসলাম চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান জনসভা পরিচালনা করেন।

এদিন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চট্টগ্রামে কর্ণফুলী নদীর তলদেশে টানেলসহ ১০টি প্রকল্পের উদ্বোধন এবং দুটি প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করবেন। এছাড়াও তিনি চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের ছয়টি উদ্যোগের উদ্বোধন করবেন।

আরোও পড়ুন
কেন ২৮ অক্টোবর? কি হবে সেদিন?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button