বিশেষসর্বশেষ

নিষেধাজ্ঞা জারি ইলিশ ধরায়, মাইকিং করে রাতে বিক্রি হচ্ছে ইলিশ

ইলিশ ধরায় ২২ দিনের নিষেধাজ্ঞা

প্রজনন মৌসুমে ইলিশ মাছ রক্ষায় বুধবার মধ্যরাত থেকে সাগর ও নদীতে মাছ ধরায় ২২ দিনের নিষেধাজ্ঞা শুরু হয়েছে।

নিষেধাজ্ঞার পরিপ্রেক্ষিতে বেশিরভাগ জেলে বুধবার সন্ধ্যার আগেই সাগর ও নদী থেকে জাল নিয়ে বাড়ি ফিরেছেন। গতকাল মাইকিং করে কয়েকটি এলাকায় বিশেষ ছাড়ে ইলিশ বিক্রি করতে দেখা গেছে।

সীতাকুন্ড
নিষেধাজ্ঞার কারণে স্থানীয় জেলেরা দুপুরের আগেই সন্দ্বীপ উপকূলের বেড়িবাঁধে জাল তুলে শুকাতে দেখা যায়। পরে তারা জাল নিয়ে বাড়ি ফিরে আসে। জেলেরা জানান, এ বছর ইলিশ কম ধরা পড়লেও দাম বেশি থাকায় লোকসান হয়নি।

উপজেলা মৎস্য অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, এবার বঙ্গোপসাগরের মোহনা ও সন্দ্বীপ চ্যানেলের সীতাকুণ্ড অংশে ২ হাজার ৮০ মেট্রিক টন ইলিশ ধরা পড়েছে। গত বছর ১ হাজার ৪৫৬ মেট্রিক টন ইলিশ পাওয়া গেছে।ইলিশ

রাঙ্গুনিয়া
নিষেধাজ্ঞার আগে উপজেলার সবচেয়ে বড় মাছের বাজার মরিয়মনগরের চৌমুহনীতে বিক্রেতাদের বিশেষ ছাড়ে মাছ বিক্রি করতে দেখা যায়। গতকাল সকাল আটটায় দেখা গেছে, মাছ কিনতে বাজারে ক্রেতাদের ভিড়।

চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়ার মরিয়মনগর মাছের বাজারে মাছ কিনছেন ক্রেতারা
চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়ার মরিয়মনগর মাছের বাজারে মাছ কিনছেন ক্রেতারা ছবি: প্রথম আলো
মাছ বিক্রেতা। কামাল উদ্দিন বলেন, আমার কাছে ৫০০ কেজি ইলিশ মাছের মজুদ রয়েছে। তাই আগের দিনের তুলনায় অর্ধেক দামে মাছ বিক্রি করছি,” বলেন বেতাগী উপজেলার এক ক্রেতা। সেলিম বলেন, “দামের কারণে এত দিন ইলিশ কিনতে পারিনি। দাম কিছুটা কমার খবর নিয়ে বাজারে এসেছিলাম।

সোনাগাজী
শেষ দিনে জেলেরা নদী ও সাগরে গিয়ে মাছ কম পেয়ে হতাশ হয়ে ফিরেছেন। তবে অগ্রিম সহায়তা পেয়ে খুশি অনেক জেলে। গতকাল সকালে উপজেলার চর খোন্দকার মৎস্য আহরণে নিষেধাজ্ঞার বিষয়ে জেলেদের নিয়ে এক সচেতনতামূলক সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা মৎস্য কর্মকর্তা মো. বিলাল হোসেন।

উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা তূর্য সাহা জানান, নিষেধাজ্ঞা শুরুর আগে চারটি ইউনিয়নে ২৫০ ইলিশ শিকারীর পরিবারকে ৩০ কেজি করে চাল বিতরণ করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button