সর্বশেষআন্তর্জাতিক

ফিলিস্তিন-ইসরায়েল সংঘাতের সর্বশেষ যা জানা গেল

ইসরায়েল-ফিলিস্তিন সংঘাত তিন সপ্তাহ ধরে টেনেছে। গাজা ও পশ্চিম তীরে ইসরাইলি হামলায় প্রতিদিনই বেসামরিক মানুষ প্রাণ হারাচ্ছে।

ফিলিস্তিন
খবরের অন্তরালে

ফিলিস্তিন এখন মৃত্যুশয্যার মতো বাস করছে। অন্যদিকে ইসরাইল এখনো হামাসকে ছেড়ে দেয়। একনগর সংঘাতের সর্বশেষ খবর-গাজায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৮৩০৬ গত ২৪ ঘণ্টায় গাজা উপত্যকায় ইসরায়েলি বাহিনীর নির্বিচারে হামলায় ৯৩ জন নিহত হয়েছে। ৭ অক্টোবর থেকে অব্যাহত এই হামলায় নিহত হয়েছেন ৮ হাজার ৩০৬ জন। যার মধ্যে ৩ হাজার ৪৫৭ জন শিশু। এ ছাড়া নিহত হয়েছেন ২ হাজার ১৩৬ জন নারী ও ৪৮০ জন বয়স্ক ব্যক্তি। হামলায় আহত হয়েছেন ২১ হাজার ৪৮ জন। সার্চ করছেন ১ হাজার ৯৫০ জন। এর মধ্যে ১,৫০০ শিশু রয়েছে।গাজা শহরের দক্ষিণ প্রান্তে ইসরায়েলি ট্যাঙ্ক, গুরুত্বপূর্ণ সড়ক বন্ধ

ফিলিস্তিন হাসপাতালে হামলার হুমকি অব্যাহত রয়েছে ফিলিস্তিন আল-কুদস হাসপাতাল খালি করতে বলেছে ইসরাইল। অন্যথায় সেখানে হামলা হতে পারে বলে হুমকি দিচ্ছে ইসরায়েলি সেনাবাহিনী। এ কারণে তারা হাসপাতাল খালি করতে বলেন। তবে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বলছে, এই মুহূর্তে কোনো রোগী স্থানান্তর করা সম্ভব নয়। ফিলিস্তিনের রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি জানিয়েছে, হাসপাতালের পশ্চিম দিকে ইসরাইল বিমান হামলা চালাচ্ছে।হামাসের হামলার জন্য নিরাপত্তা প্রধানদের দায়ী করার পর ক্ষমা চেয়েছেন নেতানিয়াহু

ইসরাইল হামাসের ৬০০ স্থাপনায় হামলা চালায় সারা রাত গাজায় বোমাবর্ষণ করে ইসরাইল।ফিলিস্তিন দেশটির প্রতিরক্ষা বাহিনী জানিয়েছে, তারা গতকাল রাতে হামাসের ৬০০ স্থাপনায় হামলা চালিয়েছে। আগের দিন, ইসরাইল হামাসের ৪৫০টি স্থাপনা লক্ষ্য করে বোমা হামলা চালিয়েছিল।

তীব্র পানি সংকট যুদ্ধবিধ্বস্ত গাজায় পানির তীব্র সংকট দেখা দিয়েছে। ফলে পানিবাহিত রোগ ছড়িয়ে পড়েছে এবং দেখা দিয়েছে ত্বকের নানা সমস্যা। গতকাল অবরুদ্ধ গাজা উপদ্বীপে ৩০টি ত্রাণবাহী ট্রাক প্রবেশ করেছে।

ইহুদিদের রক্ষার জন্য রাশিয়ার প্রতি আহ্বান জানিয়েছে ইসরাইল রাশিয়াকে তার নাগরিক ও ইহুদিদের সুরক্ষার আহ্বান জানিয়েছে। সম্প্রতি রাশিয়ায় ব্যাপক ইসরায়েল বিরোধী বিক্ষোভ হয়েছে। বিক্ষোভকারীরা ইহুদি বিরোধী স্লোগান দেয়। ওই ঘটনায় ৬০ জনকে আটক করেছে রাশিয়ার সংবাদ সংস্থাগুলো।

আরো পড়ুন

ইসরায়েলি হামলায় স্ত্রী ও সন্তানদের হারানো আল-জাজিরার

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button