আঞ্চলিকসর্বশেষ

বরিশালে ভ্রাম্যমাণ আদালতে জেলেদের হামলা, জেলে গেলেন তিন জেলে

বরিশালের মেহেদীগঞ্জ উপজেলার তেঁতুলিয়া নদীতে মা ইলিশ রক্ষায় অভিযান চালাতে গিয়ে জেলেদের হামলার শিকার হয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

বরিশালে ভ্রাম্যমাণ আদালতে জেলেদের হামলা, জেলে গেলেন তিন জেলে

শনিবার বিকেলে তেঁতুলিয়া নদীর মোস্তফাবাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। রবিউল হাসান, সুমন সরদার ও মো. আহত হন সুজন।

মহেন্দীগঞ্জ উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মো. কামাল হোসেন জানান, সকাল সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) তানভীর আহমেদের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালত তেঁতুলিয়া নদীতে অভিযান চালাতে যায়। এ সময় নদীতে মাছ ধরতে আসা জেলেদের ধাওয়া করে তিনটি ইঞ্জিনচালিত নৌকা ও নিষিদ্ধ ভাসমান জালসহ পাঁচটি নৌকা জব্দ করা হয়। এরপর দেড় শতাধিক নারী-পুরুষ একত্রিত হয়ে তাদের ওপর হামলা চালায়।

মৎস্য কর্মকর্তা কামাল হোসেন আরও জানান, হামলাকারী জেলেরা ইঞ্জিনচালিত দুটি নৌকা ছিনিয়ে নেয়। নৌকা দুটিকে বাঁচাতে তিনজন নাবিক এগিয়ে এলে হামলাকারীরা তাদের পিটিয়ে আহত করে। এ ঘটনায় অজ্ঞাতদের বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের প্রক্রিয়া চলছে।

ভারপ্রাপ্ত ম্যাজিস্ট্রেট তানভীর আহমেদ হামলার পর একটি ইঞ্জিনচালিত নৌকা ও তিনটি ট্রলারসহ তিনটি নৌকা জব্দ করা হয়েছে বরিশালে। হামলায় কেউ গুরুতর আহত হয়নি। আহতদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। জব্দকৃত জাল পুড়িয়ে ধ্বংস করা হবে এবং তিনটি নিলামে নৌকা বিক্রি করা হবে। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।
তিন কারাদণ্ড

এদিকে বরিশালে কীর্তনখোলা নদীতে মা ইলিশ ধরার দায়ে তিন জেলেকে এক বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে নদীতে জাল ফেলার দায়ে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। গতকাল বেলা ১২টার দিকে সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. মনিরুজ্জামান এ সাজা ঘোষণা করেন।

বরিশালে জেলেদের মধ্যে সদর উপজেলার চরকাউয়া এলাকার আরাফাত মজুমদার (২৬), কাউনিয়া থানার চুড়ামন এলাকার রুবেল মৃধা (৩০) ও আজিজুল মৃধা (২৭) রয়েছেন।

মা ইলিশ সংরক্ষণ অভিযানের দ্বিতীয় দিনে কীর্তনখোলা নদীতে উপজেলা মৎস্য অফিস ও নৌ-পুলিশ যৌথ অভিযান চালায়। এ সময় নদী থেকে ছয় জেলেকে আটক করা হয়। গ্রেফতারকৃত তিন জেলেকে পরে ভ্রাম্যমাণ আদালত এক বছরের কারাদণ্ড দেন। বাকি তিনজন তরুণ হওয়ায় পারিবারিক স্বীকৃতির ভিত্তিতে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। অভিযানে জেলেদের কাছ থেকে জব্দ করা জাল পুড়িয়ে ফেলা হয়।

আরও খবর

জীবিত দুই মুখা সাপ ডিমের ভিতর, আতঙ্কিত উলিপুরবাসী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button