বাণিজ্যসর্বশেষ

রেলমন্ত্রী নভেম্বরে খুলনা-মোংলা রেলপথ চালু হবে

আগামী ৯ নভেম্বর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা খুলনা-মংলা রেলপথের উদ্বোধন করবেন

আগামী ৯ নভেম্বর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা খুলনা-মংলা রেলপথের উদ্বোধন করবেন বলে জানিয়েছেন রেলমন্ত্রী এম.ডি. নুরুল ইসলাম সুজন।

তিনি বলেন, রূপসা নদীর ওপর ৫ দশমিক ১৩ কিলোমিটার দীর্ঘ রেলসেতুর কাজ শেষ হয়েছে। ফুলতলা-মংলা রেলপথের ৯৮ দশমিক ০৫ শতাংশ কাজ শেষ হয়েছে। বাকি কাজ ৩১ অক্টোবরের মধ্যে শেষ হবে। আগামী ৯ নভেম্বর নতুন এই রেলপথের উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

নভেম্বরে খুলনা-মোংলা রেলপথ চালু হবে

শনিবার খুলনা-মংলা নতুন রেলপথ পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের কাছে রেলমন্ত্রী এসব কথা বলেন। বিকেলে তিনি খুলনা ফুলতলা রেলওয়ে স্টেশন থেকে খুলনা-মংলা রেলওয়ে প্রজেক্ট অ্যালাইনমেন্ট (ব্রিজ নং ১০) ও মোহাম্মদনগর রেলওয়ে স্টেশন পরিদর্শন করেন। পরে তিনি মোহাম্মদনগর এলাকায় সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

রেলমন্ত্রী বলেন, রেলওয়ে বাংলাদেশের জাতীয় সম্পদ। রেল যোগাযোগের সবচেয়ে সহজ এবং নিরাপদ মাধ্যম। সমগ্র বাংলাদেশকে রেলের আওতায় আনতে সরকার রেলওয়ের সম্প্রসারণ ও আধুনিকায়নে বিশেষ মনোযোগ দিচ্ছে। খুলনা-মংলা রেলপথ চালু হলে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের অর্থনৈতিক উন্নয়নে বড় ভূমিকা রাখবে। সুন্দরবন কেন্দ্রিক পর্যটন শিল্প গড়ে উঠবে। রেলপথ উদ্বোধন করতে কিছুটা সময় লাগলেও কাজের মান নিয়ে তিনি সন্তোষ প্রকাশ করেন।

রেলমন্ত্রী আরও বলেন, ফুলতলা-মংলা পর্যন্ত রেললাইন চালু হলে বাংলাদেশের সঙ্গে ভারত, নেপাল ও ভুটানের যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নতি হবে এবং মংলা বন্দর ব্যবহার করে কম খরচে পণ্য আমদানি-রপ্তানির সুযোগ তৈরি হবে। পাবেন. , এতে সরকারের রাজস্ব বাড়বে এবং নতুন কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হবে।

এদিকে বিকেলে বাগেরহাটের মংলাবন্দর রেলস্টেশন পরিদর্শন করেন রেলমন্ত্রী মো. নুরুল ইসলাম। এ সময় রেলপথ মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা, প্রকল্প পরিচালক ও প্রকল্পের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

এ সময় রেলমন্ত্রী স্থানীয় সাংবাদিকদের বলেন, রূপসারের ওপারে রেললাইনের দুই-আড়াই কিলোমিটারের কিছু অংশের কাজ শেষ হয়নি। এক সপ্তাহের মধ্যে সংযোগের কাজ শেষ হলে রেলপথ পুরোপুরি চালু হবে। এ ছাড়া দুই-তিনটি সেতুতে ত্রুটি ছিল যা মেরামত করা হয়েছে। কোনো প্রকার ত্রুটি ছাড়াই পুরো রেলপথ উদ্বোধনের উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে।

রেলওয়ে সূত্র জানায়, ট্রানজিট সুবিধা হিসেবে ভারত, নেপাল ও ভুটানে পণ্য পরিবহনের সুবিধার্থে খুলনার ফুলতলা রেলস্টেশন থেকে মংলা বন্দর পর্যন্ত রেলপথ স্থাপনের প্রকল্প সরকার ২০১০ সালে শুরু করে। প্রকল্পটি ২১ ডিসেম্বর ২০১০-এ ACNE দ্বারা অনুমোদিত হয়েছিল।

ভারতীয় ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান লারসেন অ্যান্ড টার্বো এবং ইরকন ইন্টারন্যাশনাল ভারত সরকারের কাছ থেকে ঋণের মাধ্যমে প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করছে। প্রাথমিকভাবে প্রকল্পটির ব্যয় ধরা হয়েছিল ৩ হাজার ৮০১ কোটি ৬১ লাখ টাকা। প্রকল্পটি ডিসেম্বর ২০১৩ সালে শেষ হওয়ার কথা ছিল। এই সময়কাল অক্টোবর ২০২৪ পর্যন্ত বেশ কয়েকটি ধাপে বাড়ানো হয়েছে। সর্বশেষ প্রকল্পের ব্যয় ৪ হাজার ২৬০ কোটি ৮৮ লাখ ৫৯ হাজার টাকা।

আরও পড়ুন

গ্যাস সংযোগের অভাবে ফার্মাসিউটিক্যাল শিল্প পার্কের কাজ ঝুলছে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button