রাজনীতিসর্বশেষ

সরকার সংঘাত ও অনিশ্চয়তা সৃষ্টি ফখরুল

সরকার সংঘাত ও অনিশ্চয়তা সৃষ্টি

নির্বাচনের সময় সংবিধান থেকে নির্দলীয় তত্ত্বাবধায়ক সরকারের বিধান সরিয়ে বর্তমান সরকার ‘সংঘাত ও অনিশ্চয়তা’ সৃষ্টি করেছে বলে মনে করেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

সরকার
মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম

তিনি বলেন, এই সরকার দেশকে বিভক্ত করেছে। বিভাজনের রাজনীতি চায় না বিএনপি। ঐক্যের রাজনীতি চাই।

দুর্গাপূজার সপ্তম দিন শনিবার রাতে ঢাকেশ্বরী কেন্দ্রীয় পূজামণ্ডপে হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের শারদীয় শুভেচ্ছা বিনিময় অনুষ্ঠানে মির্জা ফখরুল এসব কথা বলেন।

ধর্ম নিয়ে যেন কোনো সংঘাত না হয়, সাম্প্রদায়িকতা যেন না হয় সে বিষয়ে সবাইকে সচেতন থাকার অনুরোধ জানান বিএনপি মহাসচিব। তিনি বলেন, যত অনাকাঙ্খিত ঘটনা ঘটেছে, তার সঙ্গে শাসকগোষ্ঠীর লোকজন জড়িত থাকতে দেখা গেছে।

কথাগুলো আমার নয়, আপনার শ্রদ্ধেয় নেতা রানা দাশগুপ্তের। তিনি সাফ জানিয়ে দেন, চাইলে শান্তিপূর্ণভাবে পূজা করতে পারে, না চাইলে হবে না।

মির্জা ফখরুল বলেন, বিএনপি শুধু অসাম্প্রদায়িকতায় বিশ্বাস করে না, অন্য সম্প্রদায়ের অধিকার রক্ষারও চেষ্টা করে। তিনি বলেন, রমন কালী মন্দির ধ্বংস হয়ে গেছে। বিএনপি সরকারের আমলে তা উদ্ধার করা হয়। ঢাকেশ্বরী মন্দির স্থান দখল করা হয়। বিএনপি নেতা ঢাকার সাবেক মেয়র সাদেক হোসেন খোকা এই জমি পুনরুদ্ধার করেন।

সরকার
মির্জা ফখরুল ইসলাম

মির্জা ফখরুল বলেন, বিএনপি গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের জন্য লড়াই করছে। বিএনপি বিশ্বাস করে, গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠিত হলে সবার অধিকার প্রতিষ্ঠা করা সম্ভব হবে।

ঢাকেশ্বরী মন্দির প্রাঙ্গণে আয়োজিত এই শুভেচ্ছা বিনিময় অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন সার্বজনীন পূজা অনুষ্ঠান কমিটির সভাপতি মণীন্দ্র কুমার রায়, বাংলাদেশ পূজা উৎসব পরিষদের চেয়ারম্যান জেএল ভৌমিক, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির আহ্বায়ক আবদুস সালাম প্রমুখ।

সরকার
মির্জা ফখরুল

পরে রাতে বিএনপির সাধারণ সম্পাদক বনানী পূজামণ্ডপ পরিদর্শন ও শুভেচ্ছা বিনিময় করেন। মির্জা ফখরুল বনানী পূজামণ্ডপে পৌঁছালে পূজা উৎসব কমিটির নেতারা তাকে স্বাগত জানান।

আরও পড়ুন
বিএনপি সন্ত্রাসী হলে আওয়ামী লীগ সন্ত্রাসের জনক -ফখরুল

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button